শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নীতিমালা বহির্ভূত কাজ করলে কঠোর ব্যবস্থা : ভূমিমন্ত্রী

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নীতিমালা বহির্ভূত কাজ করলে কঠোর ব্যবস্থা : ভূমিমন্ত্রী

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নীতিমালা বহির্ভূত কাজ করলে কঠোর ব্যবস্থা : ভূমিমন্ত্রী

ঢাকা: ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ বলেছেন, এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নীতিমালা বহির্ভূত কাজ করলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার এমপিওভুক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও শিক্ষকদের জীবন মানের উন্নয়ন ঘটিয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, শিক্ষা নিয়ে অবৈধ বাণিজ্য কোনভাবেই বরদাশত করা হবে না। শিক্ষার্থীদের জন্য সরকারের সকল সহায়তা, সুস্বাস্থ্য ও শিক্ষা উপকরণ বিতরণ নিশ্চিত করতে হবে।

ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে অবৈধভাবে অর্থ আদায় কিংবা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিয়ে কোন দুর্নীতির প্রমাণ পাওয়া গেলে প্রতিষ্ঠানের এমপিওভুক্তি বাতিলসহ ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রমও বাতিল করা হবে।

বৃহস্পতিবার (১৪ জুলাই) ভূমি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে কেন্দ্রীয় ভূমি বরাদ্দ কমিটির ১০৮তম সভায় ঢাকা জেলার ওয়ারী উচ্চ বিদ্যালয়ের জন্য ১৪ শতাংশ ভূমি অধিগ্রহণ মঞ্জুর করার সময় ভূমি মন্ত্রী সভাপতির বক্তব্যে সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানের প্রতি এ মন্তব্য করেন।

ভূমি অধিগ্রহণে কোন প্রকার জনরোষের সৃষ্টি যাতে না হয় সেদিকে বিশেষ সতর্কতার সাথে খেয়াল রাখা এবং প্রত্যাশী সংস্থা কর্তৃক অধিগৃহীত জায়গায় আবেদিত প্রকল্প যথাযথভাবে দ্রুত বাস্তবায়িত হচ্ছে কিনা সেদিকে মনিটরিং করার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন ভূমিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, প্রস্তাবিত ভূমিতে ধর্মীয় উপসানালয়, কবরস্থান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, আবাদি ফসলী জমি বা জনবসতি অঞ্চলে অধিক বসতভিটা ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে এমন জায়গা অধিগ্রহণ মুক্ত রাখতে হবে।

সভায় রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ বাস্তবায়িত ‘গুলশান বনানী বারিধারা লেক উন্নয়ন শীর্ষক ২৫ দশমিক ৪৩ একর ভূমি, ঢাকার হাজারীবাগে ডিএমপি লালবাগ থানার নিজস্ব ভবন নির্মাণে ৫০ শতাংশ ভূমি, ছয়টি জেলায় সরকারি গণগ্রন্থাগার স্থাপনে ৩৩ শতাংশ ভূমি, রাজশাহীর বোয়ালিয়া থানার চন্ডিপুরে দুর্নীতি দমন কমিশন-এর বিভাগীয় কার্যালয় ও সমন্বিত জেলা কার্যালয় ভবন নির্মাণে ১৭ শতাংশ ভূমি, রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ১১টি প্রকল্পের জন্য ১০ একর ভূমি, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিক অব প্রফেশনালস (বিইউপি) এর ছাত্র-ছাত্রী হল এবং কর্মকর্তা, শিক্ষক, কর্মচারিদের আবাসন প্রকল্পের জন্য ৪ একর ভূমি, ঢাকার সূত্রাপুর থানাধীন ওয়ারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৪ শতাংশ ভূমি এবং নরসিংদী সদও উপজেলায় ৩৩/১১ কেভি ২০ এমভিএ বৈদ্যুতিক উপকেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের জন্য ৪০ শতাংশ ভূমি অধিগ্রহণ অনুমোদন করা হয়।