বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ০৭:২৯ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

শেষ মুহুর্তে চাটমোহরে ঈদের কেনাকাটা জমে উঠেছে

শেষ মুহুর্তে চাটমোহরে ঈদের কেনাকাটা জমে উঠেছে

image_pdfimage_print

জাহাঙ্গীর আলম, চাটমোহর : শেষ মুহুর্তে পাবনার চাটমোহরে ঈদের কেনাকাটা জমে উঠেছে । সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত চলছে কেনাকাটা।

আর এ শহরের শুধু চাটমোহর উপজেলার মানুষ যে কেনাকাটা করতে আসেন, তা কিন্তু নয়। আশপাশের উপজেলার লোকজনও বিভিন্ন উৎসবে এখানে কেনাকাটা করতে আসেন। তাই যে কোনো উৎসবে বেশ জমে ওঠে চাটমোহর বাজারের কেনাকাটা।

এখন চলছে শেষ মুহুর্তে ঈদের কেনাকাটা। এ শহরে থান কাপড়, তৈরি পোশাক কেনাকাটার জন্য অত্যাধুনিক সুপার মার্কেট এআর প্লাজা, জেএস মার্কেট, মির্জা মার্কেট, সরদার মার্কেট, হোসেন মার্কেট। জুতা-স্যান্ডেল ও কসমেটিকস সামগ্রীর দোকানপাটগুলোও সরগরম।

এদিকে আসন্ন ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে ইতিমধ্যে প্রায় সব চাকরিজীবী বেতন ও ঈদ বোনাস হাতে পেয়েছেন। আর তাই তারা নেমে পড়েছেন নিজের পরিবারের সদস্য ও আত্মীয়-স্বজনদের কেনাকাটায়।ফলে মার্কেটে বেচাকেনায় যেন হিড়িক পড়েছে।

পছন্দের পোশাকটি খুঁজতে এ দোকান থেকে ও দোকান ঢু মারছেন ক্রেতারা। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মানুষের গিজগিজে ভিড়ে মার্কেটে রীতিমতো ঢোকা মুশকিল হয়ে পড়েছে।

ব্যবসায়ীরা বিপণি বিতানগুলোয় দেশি-বিদেশি পণ্যের সমাহার ঘটিয়েছেন। দেশি কাপড়ের সাথে পাল্লা দিয়ে ক্রেতারা বিদেশি পোশাকও কিনছেন।

আর দোকানিরাও হাল ফ্যাশনের আনকমন সব পোশাক সংগ্রহে রেখেছেন।

ভারতীয় বিভিন্ন সিরিয়াল ও সিনেমার নামের নামকরণ এসব পোশাক। তবে দেশি পোশাকের ক্রেতার সংখ্যা এ বছর বেশি। এখন বেশি বিক্রি হচ্ছে তৈরি পোশাক।

কারণ থান কাপড় কিনে পোশাক তৈরির সময় আর এখন হাতে নেই। তাছাড়া টেইলার্সগুলোও পোশাক তৈরি অর্ডার নেওয়া একেবারে বন্ধ করে দিয়েছে।

পুরুষরা পাঞ্জাবি-পায়জামার সাথে ম্যাচিং করে জুতা-স্যান্ডেল কিনছেন। আর নারী ক্রেতারা কিনছেন ইমিটেশন অলঙ্কারসহ কসমেটিক সামগ্রী।

এ অবস্থায় অনেক ক্রেতা কেনাকাটায় অনেক কাটছাঁট করছেন। মার্কেটগুলোয় উপচেপড়া ভিড়। মার্কেটে নিরাপত্তার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

সড়কে নিয়োগ করা হয়েছে পুলিশ সদস্য। মার্কেটে নিরাপত্তায় নজরদারি রয়েছে পুলিশের।

ব্যবসায়ীরা জানান, ঈদের বাজারে বাইরে থেকে আসা ক্রেতাদের ভিড় লক্ষ্যণীয়ভাবে বেড়ে যায়। বিষয়টি মাথায় রেখে শহর যানজটমুক্ত রাখতে প্রাণপণ চেষ্টা করছে পুলিশ।

শুধু চাটমোহর শহরেই নয় উপজেলার হান্ডিয়াল, শরৎগঞ্জ, রেলবাজারেও চলছে কেনাকাটা। সব মিলিয়ে শেষ মুহুর্তে ঈদের কেনাকাটা এখন জমজমাটভাবে চলছে।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!