বুধবার, ০৮ এপ্রিল ২০২০, ১১:৪৯ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

সাঁথিয়ায় গণপিটুনিতে চরমপন্থি নিহতের ঘটনায় ৭শ জনের বিরুদ্ধে মামলা

বার্তা সংস্থা পিপ, পাবনা : পাবনার সাঁথিয়ায় ডাকাতি করে যাওয়ার সময় এলাকাবাসীর গণপিটুনিতে অস্ত্র, খুন, ডাকাতি, ছিনতাই ও বিস্ফোরক আইনে প্রায় ডজন খানেক মামলার আসামী দুই চরমপন্থি নিহতের ঘটনায় শনিবার রাতে মামলা হয়েছে।

এতে আসামী করা হয়েছে অজ্ঞাত প্রায় ৭ শত জনকে। যার মামলা নং ১৫। তাং ১৭/৮/১৯। একই রাতে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধারের ঘটনায় অপর একটি অস্ত্র মামলা দায়ের হয়েছে। যার নং ১৪।

সাঁথিয়া থানার ওসি তদন্ত আব্দুর রহমান মামলার সত্যতা স্বীকার করে জানান, নিহতরা চরমপন্থিদলের সক্রিয় সদস্য। এদের বিরুদ্ধে প্রায় ডজনখানেক মামলা রয়েছে। এর মধ্যে বেশীর ভাগ মামলার ওয়ারেন্ট রয়েছে।

এ ঘটনায় যারা জড়িত এমনকি এদেরকে যারা লালন পালন করে আসছিল তাদেরকেও ডিজিটাল তদন্ত পূর্বক আইনের আওতায় আনা হবে।

তিনি আরও বলেন, নিহতদের আমরা জনরোষ থেকে জীবিত উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসতে সক্ষম হই। পরে হাসপাতালের চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য পাবনা রিফার্ড করলে পথিমধ্যে তারা মারা যায়।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার দিবাগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে ছোন্দহ গ্রামে পাউবোর পানি নিস্কাশন ক্যানেলের পাশের গ্রামে ডাকাতি করে যাওয়ার সময় গণপিটুনিতে ২জন চরমপন্থি নিহত হয়। বাকী আরও ২ জন পালিয়ে যায়।

এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে এক রাউন্ড তাজা গুলি ও একটি শাটারগান উদ্ধার করে। পুলিশের দাবী নিহতরা চরমপন্থি সর্বহারা দলের সক্রিয় সদস্য ছিল।

নিহতরা হলেন- উপজেলার জোড়গাছা গ্রামের আঃ ছাত্তারের ছেলে শাহীন ওরফে হলকা শাহীন (৪৫) ও ধুলাউড়ি গ্রামের মৃত ঈমান আলীর ছেলে আব্দুল্লাহ কানা।

স্থানীয়রা জানায়, এদের জ্বালায় অতিষ্ট ছিল এলাকাবাসী। তাদের মৃত্যুতে এলাকাবাসী স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে।


টুইটারে আমরা

© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial