সাঁথিয়ায় শিক্ষক কর্তৃক অভিভাবককে বেত্রাঘাত!

পাবনার সাঁথিয়ায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক কর্তৃক এক মহিলা অভিভাবককে বেতাঘাত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনার ন্যায় বিচার চেয়ে শিক্ষামন্ত্রীসহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভূগি। ঘটনাটি ঘটেছে পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার পি,তৈলকুপি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, উপজেলার পি,তৈলকুপি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রিড়া প্রতিযোগিতায় ৫ম শ্রেণির ছাত্রী মদিনা খাতুনকে তার সহপাঠীরা খেলাধুলা বিষয় নিয়ে মারপিট করে। ওই ছাত্রী বিষয়টি তার বাড়ীতে গিয়ে জানালে মদিনার দাদী মমেনা খাতুন (৫০) পরদিন বিদ্যালয়ে গিয়ে শিক্ষকদের নিকট বিচার প্রার্থী হন।

এতে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হেলাল উদ্দিন ক্ষিপ্ত হয়ে বৃদ্ধা অভিভাবককে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ করেন এবং হাতে থাকা বেত দিয়ে তার শরীরে আঘাত করেন।

বিষয়টি বিদ্যালয়ের সভাপতিসহ অন্যদের জানালে তারা সমাধানের আশ্বাস দিয়ে কালক্ষেপন করতে থাকে। ঘটনার কয়েক দিনেও বিচার না পেয়ে গত ২৩ মার্চ(বুধবার) বৃদ্ধা অভিভাবক মমেনা খাতুন বাদী হয়ে শিক্ষামন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেন ।

পি,তৈলকুপি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আ: লতিফ জানান, অভিভাবকের সাথে শিক্ষকের যে ঘটনা ঘটছে তা আমরা সমাধানের চেষ্টা করছি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আমির হোসেন জানান, অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করা হচ্ছে। তদন্ত শেষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ ব্যপারে সাঁথিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার শফিকুল ইসলাম জানান, অভিযোগটি খতিয়ে দেখবেন।