শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ০২:৩৫ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

সাঁথিয়ায় স্বামীর নির্যাতনে স্কুল শিক্ষিকা হাসপাতালে, স্বামী গ্রেফতার

image_pdfimage_print

সাঁথিয়া প্রতিনিধি: পাবনার সাঁথিয়ায় পাষন্ড স্বামীর যৌতুকের লালসায় নিষ্ঠুর নির্যাতনের শিকার হয়েছে নার্গিছ খাতুন (৩১) নামে এক স্কুল শিক্ষিকা।

তিনি সাঁথিয়া উপজেলার যশমন্তদুলিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের স্ত্রী ও পার্শ্ববর্তী সাগরকান্দি উচ্চ বিদ্যালয়ের সহশিক্ষিকা।

ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলা যশমন্তদুলিয়া গ্রামে।

এ ঘটনায় ওই শিক্ষিকার বাবা হোসেন আলী শেখ বাদী হয়ে শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) রাতে সাঁথিয়া থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার পরপরই থানা পুলিশ আসামী নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসেন।

সাঁথিয়া থানায় দেয়া অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, সাঁথিয়া উপজেলার যশমন্তদুলিয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের সাথে এক বছর আগে বিয়ে হয় পার্শ্ববর্তী আমিনপুর থানাধীন দুর্গাপুর গ্রামের হোসেন আলীর মেয়ে স্কুল শিক্ষিকা নার্গিস খাতুন (৩১)।

বিয়ের কিছুদিন পর থেকেই তার পাষণ্ড স্বামী মোঃ নজরুল ইসলাম (৩৫) যৌতুকের টাকার জন্য তার স্ত্রীকে বিভিন্ন সময়ে বিনা কারণে-অকারণে মারপিটসহ শারিরিক নির্যাতন করতো।

এরই ধারাবাহিকতায় গত মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) বিকেলে তার স্বামী নজরুল বিনা কারণে যৌতুকের টাকা আনার জন্য চাপ দেয়।

তখন সে যৌতুকের টাকা দিতে অস্বীকার করলে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে।

এ পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে লোহার রড দ্বারা পিটিয়ে নার্গিস খাতুনের শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত জখম করে।

খবর পেয়ে নার্গিসের পরিবার তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

পরে শুক্রবার রাতে নারগিছের বাবা হোসেন আলী সেখ বাদী হয়ে ২ জনকে আসামী করে সাঁথিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। যার নং ২৫।

মামলার পর রাতেই থানাপুলিশ পাষন্ড স্বামী নজরুলকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

এদিকে বিবাদীরা ফোন করে নার্গিস খাতুনের বাবাকে মামলা হত্যাসহ বিভিন্ন ধরনের ক্ষতি করবে বলে হুমকি প্রদান করছে বলে অভিযোগ করেন হোসেন আলী সেখ।

নির্যাতিতা নারগিছ খাতুন বলেন, নজরুলের সঙ্গে তার এক নিকট আত্মীয়র সাথে অবৈধ সম্পর্ক থাকায় এ নিয়েও দুজনের যোগসাজসে প্রায়ই আমাকে নির্যাতন ও মারপিট করতো।

সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আসাদুজ্জামান মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অপরাধী যেই হোক তাকে শাস্তি পেতেই হবে।

ঘটনার পরপরই পাষন্ড স্বামী নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!