মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৮:৩৬ অপরাহ্ন

সুজানগরের পদ্মার চরে ভ্রমণ পিপাসুদের ভিড়

তৌফিক হাসান, সুজানগর, পাবনা : পাবনার সুজানগরের সাতবাড়ীয়া এলাকায় জেগে উঠেছে পদ্মার বিশাল বিস্তীর্ণ চর। চরের আশপাশে কোথাও কোন বাড়ি-ঘর নেই। দু’চোখ যতদূর যায়, শুধু ধুধু বালু চর আর মাঝে মাঝে কাশবন ছাড়া কিছু চোখে পড়েনা।

কিন্তু তারপরও প্রকৃতির নিদারুন টানে সেই চরে ভ্রমন পিপাসুদের ভিড় চোখে পড়ার মতো। স্থানীয় পর্যটকের পাশাপাশি আশপাশের এলাকার ভ্রমণ পিপাসু মানুষ প্রতিদিন ভীড় করছেন পদ্মার ওই চরে।

সাতবাড়ীয়া ইউপি চেয়ারম্যান এসএম শামছুল আলম বলেন, এক সময় প্রমত্ত পদ্মা এলাকার মানুষের দৃষ্টি আকৃষ্ট করতো। বিশেষ করে সে সময় পদ্মার বড় বড় ঢেউ দেখতে আর প্রচণ্ড গর্জন শুনতে আশপাশের মানুষ ছুটে আসতো সাতবাড়ীয়া পদ্মা নদীর পাড়ে।

কিন্তু কালের আবর্তনে পদ্মা তার সেই যৌবন হারিয়ে ফেলায় পদ্মার প্রতি আর এলাকার মানুষের তেমন কোন কৌতুহল ছিলনা। তবে গত দুই বছর পদ্মায় বিশাল চর জেগে উঠায় সাতবাড়ীয়াসহ আশপাশের ভ্রমণ পিপাসু মানুষের কাছে ওই চর বিনোদন কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে।

বিশেষ করে পদ্মার চরের মাঝ দিয়ে এঁকে-বেঁকে বয়ে যাওয়া পদ্মার সরু খাল ও দৃষ্টিনন্দন কাশবন বিনোদন প্রেমি পর্যটকদের নজর কাড়ছে।

স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য খলিলুর রহমান বলেন, প্রতিদিন কমবেশি পর্যটক পদ্মার ওই চরে ঘুরতে আসেন। তবে শুক্রবার এবং শনিবার স্থানীয় পর্যটকদের পাশাপাশি দূর-দূরান্ত থেকে শত শত পর্যটক ওই চরে এসে বনভোজন করেন।

সেই সঙ্গে পর্যটকরা পদ্মার ওই সরু খালে নৌ-ভ্রমণ করে সময় কাটান। পদ্মার চরে পরিবারপরিজন নিয়ে ঘুরতে আসা পর্যটক ইকবাল হোসেন মাস্টার জানান, পদ্মার চর, কাশবন এবং চরের মাঝ দিয়ে বয়ে যাওয়া ওই সরু খালে রয়েছে প্রকৃতির অপার সৌন্দর্য।

আর ওই সৌন্দর্য ভ্রমণ পিপাসু প্রতিটি মানুষের মনে প্রশান্তি বয়ে আনে। ফলে পর্যটকদের কাছে পদ্মার ওই বিশাল বিস্তীর্ণ চরই বড় বিনোদন কেন্দ্র হয়ে উঠেছে।


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!