সুজানগরে কিশোরীকে কুপিয়ে জখম

বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় পাবনার সুজানগরে শিলা খাতুন (১৫) নামেএক কিশোরীকে কুপিয়ে আহত করেছে বখাটে মুকুল কসাই (৩৫) নামে এক যুবক।

মঙ্গলবার রাতে উপজেলার নাজিরগঞ্জ ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। আহত কিশোরী শিলা খাতুন একই ইউনিয়নের বরখাপুর গ্রামের রংমিস্ত্রী আব্দুল করিমের মেয়ে। ঘটনার রাতেই তাকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, রংমিস্ত্রী আব্দুল করিম প্রায় দুই বছর ধরে তার পরিবার পরিজন নিয়ে গোপালপুর গ্রামের মৃত বকু মোল্লার বখাটে ছেলে এক সন্তানের জনক মকুল কসাইয়ের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। বেশ কিছুদিন ধরে মকুল কিশোরী শিলা খাতুনকে অনৈতিক ও বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করে আসছিল। মঙ্গলবার রাতে কিশোরী মুকুলের টিউবওয়েলে পানি আনতে যায়। এ সময় পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা মুকুল কসাই স্ত্রীর অনুপস্থিতির সুযোগে শিলাকে অনৈতিক প্রস্তাব দেয়। কিন্তু সে তার প্রস্তাবে রাজি না হলে ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করে। কিশোরীর চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করলেও মুকুল কসাই বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।

সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকিল আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনার পর শিলার মা রাবেয়া খাতুন বাদী হয়ে থানাতে তিনজনের নামে মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনার পর থেকে পুলিশ আসামি ধরতে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। আসামি পালিয়ে থাকতে পারবে না, খুব শিগগিরই গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।