সুজানগরে প্রকাশ্য নিলামে ৫৬ লাখ টাকার বালু বিক্রি

file (20)বার্তাসংস্থা পিপ: সুজানগর উপজেলায় জেলা প্রশাসনের জব্দ করা বিপুল পরিমাণ বালু নিলামে ৫৬ লাখ টাকায় বিক্রি করা হয়েছে। জব্দ করা ওই বালুর দাম কমপক্ষে তিন থেকে সাড়ে তিন কোটি টাকা হবে বলে জানিয়েছেন এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা।

সম্প্রতি জেলা প্রশাসন ও র‌্যাব অভিযান চালিয়ে পদ্মা নদী থেকে অবৈধভাবে উত্তোলন করা বিপুল বালু ও ১৪টি ড্রেজার আটক করে।

চলতি মৌসুমে বালুগুলো অবৈধভাবে উত্তোলন করে পাহাড়ের মতো বানিয়ে রাখা হয়েছিল।

গত রোববার (০৫ সেপ্টেম্বর) সুজানগরের সাতবাড়িয়া পদ্মা নদীর কাঞ্চন পার্ক ঘাট এলাকায় জব্দ করা বালুর পাহাড় প্রকাশ্যে নিলামে বিক্রি করা হয়।

নিলাম পরিচালনা করেন পাবনা জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেহের নিগার।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সুজানগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সাখাওয়াত হোসেন, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূর ইসলাম, পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন, সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শামছুল আলম, সহকারী তহশীলদার বাবুল আক্তার প্রমুখ।

নিলামে অংশ নেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা জালাল উদ্দিন বিশ্বাস, নাজিম উদ্দিন, মাহমুদুজ্জামান মানিক। জব্দ করা বালুর সরকারি মূল্য ধার্য করা হয় ৫০ লাখ টাকা। নিলামকারী জালাল উদ্দিন বিশ্বাস ৫৬ লাখ টাকা সর্বোচ্চ দর দিয়ে বালু কিনে নেন।

অভিযোগ উঠেছে, নিলামে অংশগ্রহণকারীরা পরস্পর যোগসাজশে দাম না বাড়িয়ে টাকা ভাগাভাগি করেন নেন।

এ ব্যাপারে পাবনা জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার (ভূমি) নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মেহের নিগারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আইন ও নিয়ম মেনে প্রকাশ্যে এই নিলাম পরিচালনা করা হয়। সেখানে সরকারি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও বিপুল মানুষ উপস্থিত ছিল। তাই অনিয়মের কোনো প্রশ্নই উঠে না।