রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১১:০৪ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

৩ দিনে পঞ্চাশটি ঘরবাড়ী নদীগর্ভে!

image_pdfimage_print

Rever20150627095738পাবনা জেলা প্রতিনিধি : গত ৩ দিনে অন্তত ৫০ টি ঘরবাড়ী বিলিন হয়ে গেছে নদীগর্ভে। ভাঙন আতংকে দিন কাটছে এখন পদ্মা ও যমুনা নদী তিরবর্তী বেড়া ও সুজানগর উপজেলার কয়েকটি গ্রামের মানুষের।

ভয়াবহ এ ভাঙনে গত এক সপ্তাহে এ দুই উপজেলার প্রায় দেড় শতাধিক ঘরবাড়ী নদী গর্ভে চলে গেছে। ভাঙনের তীব্রতায় মানুষ তাদের ঘরবাড়ী সরানোর সময়টুকু পাচ্ছেনা।

জেলা প্রশাসন ও এলাকাবাসী জানান, সুজানগর উপজেলার সিংহনগর গ্রামের পক্কীর বটতলা থেকে সিংহনগর প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত পদ্মার ভাঙন এখানে ভয়াল রুপ নিয়েছে। গত ৩ দিনে এই গ্রামের মকবুল হোসেন মৃধা, মোফাজ্জল হোসেন, গোলাম রব্বানী নব, লোদই, সেকান্দার আলী সিকা, রহমত মোল্লা, দানেজ মোল্লা, মোজন, নান্নু, বৈজুর বাড়ীসহ অন্তত ৫০টি বাড়ী নদীগর্ভে বিলীণ হয়ে গেছে। ঐ এলাকার ডিসি রোডের ৫‘শ ফুট নদী গর্ভে চলে গেছে।

এ ছাড়া সিংহনগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, মসজিদ ও একটি মাদ্রাসা থেকে নদী মাত্র ১০ মিটার দুরে রয়েছে।

এছাড়া এ ভাঙনে সুজানগর উপজেলার সিন্দুরপুর, সাতবাড়িয়া, শাখাগঞ্জ, নাজিরগঞ্জ, সাগরকান্দি, আলোকান্দি, খলিলপুর, শ্যামসুন্দরপুর, পাবনা সদর উপজেলার খাসচর, রানীনগর, ভবানীপুর, পীরপুরের কিছু অংশ নদী গর্ভে বিলীন হয়ে গেছে।

অপরদিকে যমুনার ভাঙনে বেড়া উপজেলার রঘুনাথপুর, নগরবাড়ী, খানপুরা, গনপতদিয়া, মধুপুর, মুন্সীগঞ্জ, প্রতাপপুর, সারসা, পায়না, নয়নগঞ্জ, তারুটিয়া, নাকালিয়া, মোহনগঞ্জ গ্রামের দেড় শতাধিক ঘরবাড়ী বিলীন হয়ে গেছে।

ভাঙন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড প্রায় ২ হাজার সিসি ব্লক ফেলেছে। এ ছাড়া এলাকাবাসীর উদ্যোগে ৩‘শ শ্রমিক স্বেচ্চাশ্রমে কাজ করে প্রায় ৫‘শ বাঁশ সংগ্রহ করে ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা করছে। তবে তা কাজে আসছে না।

0
1
fb-share-icon1

Best WordPress themes


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
error: Content is protected !!