মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ০৯:১০ পূর্বাহ্ন

আতঙ্কিত হবেন না
করোনা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

৮ লক্ষণে বুঝবেন প্রস্রাবে সংক্রমণ, কী করবেন?

ডা. এ এইচ হামিদ আহমেদ

প্রস্রাবে সংক্রমণ খুবই জটিল রোগ। এই রোগ হলে তলপেটে প্রচণ্ড ব্যথা হয়। পুরুষের চেয়ে নারীরা এ রোগে বেশি আক্রান্ত হয়ে থাকেন।

প্রস্রাবে সংক্রমণ কী?

শরীরে মূত্র তৈরি এবং দেহ থেকে তা নিঃসরণের জন্য যে অঙ্গসমূহ কাজ করে সেগুলোতে কোনো কারণে ইনফেকশন দেখা দিলে তাকে ইউনারি ট্রোক্ট ইনফেকশন (ইউটিআই বা UTI) বলে। একটু সতর্ক হলে এ রোগ থেকে আমরা মুক্তি পেতে পারি।

লক্ষণ

১. ঘন ঘন প্রস্রাব

২. প্রস্রাবের প্রচণ্ড চাপ অনুভব

৩. প্রস্রাবের সময় ব্যথা, জ্বালাপোড়া ও অসহ্য অনুভূতি

৪. তলপেটে স্বাভাবিকভাবে অথবা চাপ দিলে ব্যথা অনুভব

৫. ঘন ফেনার মতো অথবা দুর্গন্ধযুক্ত প্রস্রাব

৬. জ্বর-কাঁপুনিসহ অথবা কাঁপুনি ছাড়া।

৭. বমি বমি ভাব ও বমি হওয়া।

৮. কোমরের পাশের দিকে অথবা পেছনে মাঝামাঝি অংশে ব্যথা। এ ছাড়া প্রস্রাবের চাপে রাতে বারবার ঘুম ভেঙে যাওয়া।

চিকিৎসা

ড্রাগ থেরাপি হিসেবে চিকিৎসকরা নিম্নলিখিত গ্রুপের ওষুধসমূহ ব্যবহার করে থাকেন, সেফালোস্পরিন, লিভোফক্সাসিন, গ্যাটিফক্সাসিন ইত্যাদি খুবই ভালো, যা ৯৬ শতাংশ কার্যকর ব্যাক্টেরিয়াজনিত কারণে হলে।

অন্যদিকে ফাংগাসের কারণে হলে এন্টি ফাংগাল ড্রাগস দিয়ে থাকেন, সেই সঙ্গে চুলকানি থাকলে তা রোধ করার জন্য এন্টি ফাংগাল বা করটিকস্টারয়েড জাতীয় ক্রিমও দেয়া হয় বাইরের চুলকানি দূর করার জন্য এবং বেশি ব্যথা থাকলে নিউরোস্পাস্মটিক ওষুধ বেশ আরামদায়ক। পুনরাবৃত্তি সংক্রমণ না হওয়ার জন্য একই সঙ্গে সহবাস সঙ্গীকে প্রতিষেধক অ্যান্টিবায়োটিক দেয়া উচিত।

হারবাল

যেহেতু ইহা ব্যাক্টেরিয়ার আক্রমণে হয়ে থাকে, তাই ব্যাক্টেরিয়া ধ্বংসকারী অ্যান্টিবায়োটিক ছাড়া এখনও অন্য কিছু নেই। তবে সাপ্লিমেন্টারি হিসেবে ডঐঙ কর্তৃক অনুমদিত এবং সর্বশেষ রিসার্চ অনুসারে নিুের দুটি ওষুধ ভালো ফল দায়ক (Cranberry 750mg Extract Super Strength) ট্যাবলেট, যা দিনে তিনটি পর্যন্ত খেতে হবে কেনবারি জুস খুবই ফলদায়ক. যা দিনে ৩/৪ কাপ খেলে উপকৃত হবেন, তবে যাদের এলার্জি আছে তাদের জন্য নিষেধ।

অথবা ট্যাবলেট Bromelain 80mg দিনে দুবার খেতে পারেন, তবে এটি শিশুদের জন্য নিষেধ (বারমুলিন মূলত আনারসকে বলা হয়েছে (অর্থাৎ আনারসের সিরাপ দিনে ২/৩ বার খেলে ভালো উপকার পাওয়া যাবে)।

সতর্কতা

কোনো ওষুধই রেজিস্টার্ড চিকিৎসকের পরামর্শ ব্যতীত সেবন করা নিষেধ।

লেখক : কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়।

error20
fb-share-icon0
Tweet 10
fb-share-icon20


© All rights reserved 2020 ® newspabna.com

 
Design & Developed BY ThemesBazar.Com
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial
error: Content is protected !!