৯০ দশকের তুখোড় ছাত্রনেতা জহুরুল যোগ দিচ্ছেন বিএনপিতে

নব্বই দশকের তুখোড় ছাত্রনেতা জহুরুল ইসলাম বাবু শনিবার রাতে বিএনপি যোগ দিচ্ছেন। ওই দিন রাত ৯টায় তিনি তাঁর সঙ্গীদের নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে গিয়ে দলটিতে যোগ দেবেন বলে জানা গেছে।

এদিকে জহুরুল ইসলাম বাবুকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটিতে দায়িত্বশীল পদ দেওয়া হতে পারে বলে দলীয় সূত্র জানিয়েছে। এদিকে বাবুর বিএনপিতে যোগ দেওয়া নিয়ে দলের মধ্যে রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া ও নানা গুঞ্জন।

বিএনপি সূত্র জানায়, জহুরুল ইসলাম বাবু ১৯৬০ সালের ১০ ডিসেম্বর পাবনা শহরের কালাচাঁদপাড়ায় সম্ভ্রান্ত এক মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা আলহাজ আবদুল মান্নান দীর্ঘদিন পুলিশে চাকরি করেন। ১৯৭৫ সালে পাবনার আরএম একাডেমি থেকে এসএসসি, ১৯৭৭ সালে এডওয়ার্ড কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ১৯৮১ সালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়ন বিভাগে অনার্সসহ কৃতিত্বের সঙ্গে মাস্টার্স পাস করেন। রাজনৈতিক কারণে ছাত্রত্ব বজায় রাখতে আবার সমাজকর্ম বিভাগে ১৯৮২ সালে মাস্টার্সে ভর্তি হন ও পরে পাস করেন।

সূত্র জানায়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়া অবস্থায় ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের রাজনীতির মধ্য দিয়ে তাঁর রাজনৈতিক পথচলা। ১৯৭৯ সালে সালাউদ্দিন ঢালীর নেতৃত্বে জাতীয় ছাত্রদলে যোগ দেন। ১৯৮০ সালের ৬ ডিসেম্বর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে আতাউর রহমান ঢালীর নেতৃত্বে বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রীতে যোগ দেন। পরে ছাত্রমৈত্রীর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কাউন্সিলের সর্বোচ্চ ভোটে সিনেট সদস্য নির্বাচিত হন। নব্বই দশকে এরশাদবিরোধী আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন বাবু। এ ছাড়া জামায়াত-শিবির হটাও আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন। এ জন্য তাঁর নামে বেশ কয়েকটি মামলাও হয়। গত ২০ বছর তিনি রাজনীতিতে নিষ্ক্রিয় ছিলেন। তবে সামাজিক কর্মকাণ্ডে তাঁর অংশগ্রহণ ছিল নীরবে-নিভৃতে। তবে শেষদিন পর্যন্ত জাতীয় কৃষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

এ ছাড়া জহুরুল ইসলাম বাবু পাবনায় দীর্ঘদিন ফার্নিচার ব্যবসাসহ বিভিন্ন ধরনের ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ব্যক্তিগত জীবনে জহুরুল ইসলাম বাবু এক ছেলে ও এক মেয়ের বাবা।

পাবনা জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খন্দকার হাবিবুর রহমান তোতা বলেন, ‘জহুরুল ইসলাম বাবুকে বিএনপিতে স্বাগত জানাই। তাঁকে বরণ করতে আমরা সবাই প্রস্তুত।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক বিএনপি নেতা বলেন, জহুরুল ইসলাম বাবু শুধু এক নেতা। তিনি বিএনপিতে যোগ দিলে বিএনপির কোনো উপকার হবে না।

জহুরুল ইসলাম বাবু আজ শুক্রবার রাতে তাঁর বিএনপিতে যোগদানের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘বিএনপিতে ঢুকে সৃষ্টিশীল রাজনীতি করতে চাই।’