News Pabna
ঢাকাশুক্রবার , ২ সেপ্টেম্বর ২০২২

১৫ দিনের কোর্স করে তিনি  মা ও শিশু বিশেষজ্ঞ!

Faysal Mahmud
সেপ্টেম্বর ২, ২০২২ ৯:০২ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বিভিন্ন বয়সি শিশু নিয়ে ১২ থেকে ১৫ জন মা এসেছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের চিকিৎসা নিতে। এই চিকিৎসকের কাছে শুধু যে মা-শিশু এসেছেন এমন নয়। কোমর ব্যথা, হাঁটু ব্যথা, বুকের ব্যথাসহ নানা রোগ নিয়ে এসেছেন বিভিন্ন বয়সি নারী-পুরুষও। তাদের চিকিৎসা দিচ্ছেন মাধ্যমিক পাশ করা কথিত মা ও শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ নাজমুল হাসান। নিজের নামের পাশে বিভিন্ন ডিগ্রি ব্যবহার করে এক যুগ ধরে চিকিৎসার নামে এভাবেই মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করছেন তিনি। গুরুদাসপুর পৌর সদরের চাঁচকৈড় বাজারে সরকার ফার্মেসি নামের দুটি কক্ষ তার চিকিৎসালয়। কথিত এই চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র থেকে জানা গেছে, সিপিটি (ঢাকা) ও ডিএমএফ (নাটোর) নামের ১৫ দিন মেয়াদি কোর্স করেছেন তিনি।

তবে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মুজাহিদুল ইসলাম জানান, এমবিবিএসে উত্তীর্ণ না হওয়া পর্যন্ত কেউ সিপিটি ও ডিএমএফ কোর্স করতে পারবেন না। তাছাড়া চিকিৎসাশাস্ত্রে ১৫ দিনের সিপিটি ও ডিএমএফ নামের কোর্স নেই।

স্থানীয়রা জানায়, মা ও শিশু বিশেষজ্ঞ পরিচয় দিয়ে চিকিৎসা শুরু করেছিলেন নাজমুল হাসান। এরপর থেকে আশপাশের মানুষ তাকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক হিসেবে জানে। সেই সুবাদে শিশুসহ বিভিন্ন বয়সি মানুষ প্রতিদিন ভিড় জমায় নাজমুলের চেম্বারে। চিকিৎসা ফি নেওয়ার পাশপাশি বিভিন্ন ডায়াগনস্টিক থেকে পরীক্ষা-নিরীক্ষার কমিশনও নেন তিনি।

গতকাল কথিত বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নাজমুল হাসানের চেম্বারে গিয়ে দেখা গেছে শিশুদের নিউমোনিয়া, কাশি, জ্বর, ডায়রিয়াসহ যাবতীয় রোগের চিকিৎসা দিচ্ছেন তিনি। আবার রোগীর লোকজন তার ব্যবস্থাপত্রের ওষুধ কিনছেন তারই ফার্মেসি থেকে।

error: Content is protected !!