News Pabna
ঢাকামঙ্গলবার , ১৫ নভেম্বর ২০২২

আগামী জুনে পাইপ লাইনে গ্যাস পাবে উত্তরাঞ্চলবাসী

ডেস্ক নিউজ
নভেম্বর ১৫, ২০২২ ১০:৫৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পাইপ লাইনে গ্যাস পাওয়ার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে উত্তরাঞ্চলবাসীর। ইতোমধ্যে ৯০ ভাগ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। বগুড়া-রংপুর-সৈয়দপুর গ্যাস সঞ্চালন পাইপ লাইন নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শুক্র ও শনিবার পরিদর্শন শেষে পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান জানালেন, ২০২৩ সালের জুনেই ৩০ ইঞ্চি ব্যাসের উচ্চচাপ স¤পন্ন পাইপ লাইনে গ্যাস পাবে উত্তরাঞ্চলের রংপুর-নীলফামারীসহ উত্তরের ১১ জেলার মানুষ। তিনি আরও জানান, উত্তরাঞ্চলের মানুষের কাছে গ্যাস পৌঁছে দেওয়ার ওয়াদা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এখন কাজ শেষ পর্যায়ে।

এতে বদলে যাবে উত্তরাঞ্চলের উন্নয়নের দিগন্ত। এ সময় তিনি এক হাজার ৩৭৮ কোটি ৫৫ লাখ টাকার এই প্রকল্প নির্ধারিত সময়ে শেষ করার জন্য সংশ্লিষ্টদের তাগিদ দেন। পরিদর্শনের সময় প্রকল্প পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার আরিফুল ইসলাম, ডেপুটি ম্যানেজার আব্দুস সালাম মোল্লাসহ অন্যান্য কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।
সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালে বগুড়া থেকে রংপুর হয়ে নীলফামারীর ইপিজেড পর্যন্ত গ্যাস লাইন সংযোগের কাজ শুরু হয়। করোনাকালীন এই কাজ পিছিয়ে পড়েছিল। ইতোমধ্যেই পাইপ লাইন স্থাপনের কাজ প্রায় শেষ। বর্তমানে নির্মাণ চলছে সিজিএস-টিবিএস ও রিভার ক্রসিং লাইন স্থাপনের কাজ। প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার এ মেগা প্রকল্পের কাজ ২০২১ সালের জুনের মধ্যে শেষ করার লক্ষ্য ছিল। পরে চলতি বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত মেয়াদ বাড়ানো হলেও ২০২৩ সালের জুন মাসে প্রকল্পটির কাজ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। জ্বালানি ও খনিজস¤পদ বিভাগের আওতাধীন পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস কো¤পানি লিমিটেড (পিজিসিএল) এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।
গ্যাস ট্রান্সমিশন কো¤পানি লিমিটেড সূত্রে জানা যায়, বগুড়া থেকে রংপুর হয়ে সৈয়দপুর পর্যন্ত ১৪৭ দশমিক ৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ৩০ ইঞ্চি ব্যাসের সঞ্চালন লাইন বসানো হচ্ছে। পাইপ লাইনের রুট ম্যাপ অনুযায়ী অধিগ্রহণ করা জমিতে সঞ্চালন লাইন পাইপ, ইন্ডাকশন বেন্ড, কোটিং ম্যাটেরিয়ালস, ফিটিংস, পিগ ট্রাপ, বল ভাল¡, গেট ভাল¡সহ বিভিন্ন সরঞ্জাম রয়েছে।

ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান পাইপ জোড়া লাগানোসহ ভূমি উন্নয়নের কাজ স¤পন্ন করেছে। সৈয়দপুর শহরের ওয়াপদা মোড়ের বাইপাস সড়ক সংলগ্ন তিন একর জায়গায় স্থাপন করা হচ্ছে একশ’ এমএমএসসিএফডি (মিলিয়ন স্ট্যান্ডার্ড কিউবিক ফিট পার ডে) ক্ষমতাস¤পন্ন সেন্ট্রাল গ্যাস সাপ্লাই (সিজিএস) স্টেশন। এ ছাড়া এ প্রকল্পের আওতায় রংপুরে ৫০ এমএমএসসিএফডি ক্ষমতাস¤পন্ন একটি টিবিএস (টাউন বর্ডার স্টেশন) এবং পীরগঞ্জে ২০ এমএমএসসিএফডি ক্ষমতাস¤পন্ন একটি টিবিএস স্থাপন করা হচ্ছে।

এদিকে প্রকল্পটির ৯০ শতাংশ কাজ স¤পন্ন হয়েছে। এদিকে প্রকল্পের শেষ পর্যায়ের কাজ দৃশ্যমান হওয়ায় নতুন নতুন শিল্প-কারখানা স্থাপনের স্বপ্ন দেখছেন বিনিয়োগকারীরা। নীলফামারী পেট্রোল পা¤প মালিক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও শিল্পপতি আকতার হোসেন স্বপন বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ এ অঞ্চলে গ্যাসের সুবিধা না থাকায় অনেকে শিল্প-কারখানা স্থাপন করতে পারেনি বা পারছে না। এখন পাইপ লাইনে গ্যাস সরবরাহের বিষয়টি একেবারে দ্বারপ্রান্তে চলে এসেছে। তাই আমরা গ্যাস ভিত্তিক নতুন নতুন শিল্প কারখানা স্থাপনের স্বপ্ন দেখছি। গড়ে উঠবে শিল্পকারখানা, ইপিজেড, গ্যাসভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র, কৃষিপণ্য সংরক্ষণের জন্য হিমাগার। বাড়বে কর্মসংস্থান। সমৃদ্ধ হবে উত্তরাঞ্চলের মানুষের জীবনমান তথা বাংলাদেশের অর্থনীতি।

error: Content is protected !!